‘জুলাই-আগস্ট নাগাদ এইচএসসি পরীক্ষা নেওয়ার প্রত্যাশা’

‘জুলাই-আগস্ট নাগাদ এইচএসসি পরীক্ষা নেওয়ার প্রত্যাশা’

জরুরী সংবাদ

আগামী ফেব্রুয়ারি মাস থেকে সীমিত আকারে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে সশরীরে ক্লাস শুরুর লক্ষ্যে প্রস্তুতি শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার (২৯ ডিসেম্বর) পাঠ্যপুস্তক বিতরণ-২০২১ ও সমসাময়িক বিষয় নিয়ে ভার্চুয়াল এক সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এসব কথা বলেন।  

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘পরিস্থিতি অনুকূলে থাকলে আগামী জুন নাগাদ এসএসসি ও জুলাই-আগস্ট নাগাদ এইচএসসি পরীক্ষা নেওয়ার হতে পারে। আগামী বছরের এসএসসি ও সমমান এবং এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার্থীদের প্রস্তুতির জন্য সীমিত আকারে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। এর মাধ্যমে ক্লাসরুমে বসিয়ে শিক্ষার্থীদের অসমাপ্ত সিলেবাস শেষ করে একটি প্রস্তুতিমূলক পরীক্ষা নেয়া হবে। তার মধ্যে এ দুই স্তরের পরীক্ষার্থীদের পাবলিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য প্রস্তুত করা হবে।’শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ফেব্রুয়ারিতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা সম্ভব হলে আগামী বছরের এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা নেয়া হবে। এরপরে এইচএসসি পরীক্ষা আয়োজন করা হবে। তবে করোনা পরিস্থিরি কারণে দীর্ঘ দিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় আগামী বছরের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের সিলেবাস সংক্ষিপ্ত করে ক্লাস বসিয়ে তা পড়ানো হবে।

শিক্ষামন্ত্রী এসময় আরও বলেন, প্রতি বছরের শুরুতে আমরা শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দেই। তবে আগের বছরগুলোর মতো এ বছরের শুরুতে বই উৎসব হবে না। মহামারী করোভাইরাসের কারণে আমরা এখন জনসমাবেশ করতে পারি না। ভাগে ভাগে শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দেওয়া হবে।